Projukti Protidin

(মাহমুদুল হাসান) আইফোন ৮-এর ডিজাইনের সঙ্গে মিল রেখে অপেক্ষাকৃত সাশ্রয়ী নতুন আইফোন উন্মোচন করেছে অ্যাপল। কভিড-১৯ এর কারণে এ-যাবৎকালেরসবচেয়ে সাশ্রয়ী আইফোন এসই (২০২০) উন্মোচন ঘিরে কোনো আয়োজন করা হয়নি।

আইফোনে বরাবরই নিজস্ব প্রসেসর চিপ ব্যবহার করে আসছে অ্যাপল। সাশ্রয়ী আইফোন এসইর নতুন সংস্করণেও এ-১৩ বায়োনিক প্রসেসর ব্যবহার করা হয়েছে। একই প্রসেসর ব্যবহার করা হয়েছে গত বছর বাজারে আসা আইফোন ১১, আইফোন ১১ প্রো ও আইফোন ১১ প্রো ম্যাক্স সংস্করণে। অর্থাৎ সাশ্রয়ী হলেও আইফোন এসই আইফোন ১১ পরিবারের যেকোনো ডিভাইসের চেয়ে দ্রুতগতির হবে।

অ্যাপলের দাবি, আইফোন এসইর নতুন সংস্করণ সর্বকালের সেরা একক ক্যামেরা সেটআপসংবলিত আইফোন। ডিভাইসটির ১২ মেগাপিক্সেলের রিয়ার ক্যামেরায় ফোরকে ভিডিও ধারণ করা যাবে। সেলফির জন্য ডিভাইসটিতে আছে ৭ মেগাপিক্সেলের ফ্রন্ট ফেসিং ক্যামেরা, যা ১০৮০ পিক্সেল রেজল্যুশনের ভিডিও রেকর্ডিং সমর্থন করবে।

নতুন আইফোন এসইর হোম বাটনে স্যাফায়ার ক্রিস্টাল ডিজাইন ব্যবহার করা হয়েছে। ফলে হোম বাটন আরো মজবুত ও অভ্যন্তরের সেন্সর আরো নিরাপদ থাকবে। এছাড়া হোম বাটনের গোলাকার প্রান্তে একটি স্টিলের রিং ব্যবহূত হয়েছে, যা টাচআইডির জন্য ব্যবহারকারীর ফিঙ্গারপ্রিন্ট শনাক্তের কাজ করবে।

আইফোন এসইর নতুন সংস্করণ তিনটি ভিন্ন রঙে মিলবে। এগুলো হলো কালো, সাদা ও লাল। আইফোন এসই তিন ধরনের অভ্যন্তরীণ স্টোরেজ সংস্করণে বাজারে পাওয়া যাবে। এগুলো হলো ৬৪, ১২৮ ও ২৫৬ গিগাবাইট অনবোর্ড স্টোরেজ সংস্করণ। ডিভাইসটির ৬৪ গিগাবাইট অভ্যন্তরীণ স্টোরেজ সংস্করণের মূল্য ধরা হয়েছে ৩৯৯ ডলার।
২০১৬ সালের মার্চে প্রথম সাশ্রয়ী আইফোন এসই উন্মোচন করে অ্যাপল। চলতি বছর বাজারে আনা হলো ডিভাইসটির দ্বিতীয় সংস্করণ আইফোন এসই (২০২০)। চার বছর পর বাজারে আনা হলেও যুক্তরাষ্ট্রের জন্য আইফোন এসই ও আইফোন এসইর নতুন সংস্করণের মূল্য একই রাখা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *