Projukti Protidin

(প্রযুক্তি প্রতিদিন) রাজধানীর বসুন্ধরা সিটি শপিং সেন্টার থেকে শাওমির রেডমি গো স্মার্টফোন কিনেন জাহাঙ্গীর কিরন। রাতে চার্জ দিয়ে সকালে সিম লাগানোর সময় হাতের মধ্যেই বিস্ফোরিত হয় ফোনটি। কিরন জানান, ফোন বিস্ফোরণে আগুন আর ধোঁয়ায় মুহুর্তেই অন্ধকার হয়ে যায় পুরো ঘর।

কিরন দেশের একটি জাতীয় দৈনিক পত্রিকার সিনিয়র রিপোর্টার। গত ২৪ জুন রাতে বসুন্ধরা সিটির নিচতলার শাওমি’র শোরুম থেকে রেডমি গো স্মার্টফোনটি সাত হাজার পাঁচশ’ টাকা দিয়ে কিনেছিলেন তিনি। কিরন বলেন, একটি নতুন ফোনে এরকম ঘটনা ঘটার কারণ কিছুই বুঝতে পারছি না। সৃষ্টিকর্তার রহমতে বড় ধরনের দূর্ঘটনার হাত থেকে রক্ষা হয়েছে। তবে যদি রাতে চার্জ দেওয়া অবস্থায় বিস্ফোরণ হতো তাহলে আরো বড় ধরনের দূর্ঘটনা ঘটতে পারতো।

শাওমির বাংলাদেশের জনসংযোগ প্রতিষ্ঠান কনসিটো পিআর এর পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, শাওমি গ্রাহকদের নিরাপত্তাকে সর্বাধিক গুরুত্ব দেয়। সর্বোচ্চ মান নিশ্চিতের জন্য শাওমির সব ডিভাইস কঠোর মান পরীক্ষার মধ্য দিয়ে বাজারে আসে। তবে বিষয়টি কিভাবে ঘটেছে সে ব্যাপারে তদন্ত করে জানানো হবে।
শাওমি কতৃপক্ষ বিষয়টির দ্রুত সমাধানের জন্য সংশ্লিষ্ট ব্যক্তির সাথে যোগাযোগ করেেছ। তবে এ ব্যাপারে কোন আপডেট দিতে পারেনি প্রতিষ্ঠানটি।

গত বছরের বিস্ফোরিত ফোনের তালিকায় প্রথমে ছিল শাওমি। বাংলাদেশসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে বেশ কিছু ফোন বিস্ফোরণ ঘটনা ঘটে। বিস্ফোরিত ফোনের তালিকায় থাকা ফোনের মধ্যে সবার প্রথমে রয়েছে শাওমির রেড মি নোট ৪। ফেনীতে এক কলেজ ছাত্রের ব্যবহৃত শাওমি ব্র্যান্ডের ফোনটি বিস্ফোরিত হয় গত ডিসম্বরে। ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু হয় শাওমি’র ফোন ব্যবহারকারী স্বপ্নীল মজুমদার (১৭) নামের ঐ কলেজ ছাত্রের। ওই ঘটনার চারদিনের মাথায় নারায়নগঞ্জের ইব্রাহিম খলিল নামক এক ব্যবহারকারী শাওমি ব্র্যান্ডের হ্যান্ডসেট বিস্ফোরণ হওয়ার অভিযোগ করেন।
ভারতে শাওমির মোবাইল বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। দেশটির কনজ্যুমার কমপ্লেয়েন্টস নামে একটি ওয়েবসাইটে প্রেমালতা নামে এক ভুক্তভোগী এ অভিযোগ করেন। ওই ভুক্তভোগীর দাবি, কিছুদিন আগে তার শাওমির রেড মি নোট ৪ মডেলের হ্যান্ডসেটটি বিস্ফোরিত হয়।

অন্যদিকে জার্মান সংস্থা ব্লু অ্যাঞ্জেল স্মার্টফোন থেকে কত পরিমাণে রেডিয়েশন নির্গত হচ্ছে সে বিষয়ে একটি তালিকা প্রকাশ করেছে। সেই তালিকায় দেখা গেছে, সবচেয়ে বেশি রেডিয়েশন নির্গত হয় শাওমি ফোনে। ফোনটি থেকে রেডিয়েশন নির্গত হওয়ার পরিমাণ প্রতি কিলোগ্রামে ১ দশমিক ৭৫ ওয়াট। যা হতে পারে ব্যবহারকারির ব্রেন টিউমারের কারণ!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *